সুয়ারেসদের হারিয়ে ব্রাজিলের সঙ্গে ব্যবধান কমালো মেসিরা

আর্জেন্টিনা-উরুগুয়ের ফুটবল দ্বৈরথকে এ নামেই ডাকে লাতিন আমেরিকায়। লা প্লাতা নদীর দুই পাড়ের দেশের ফুটবল লড়াই অন্যকরম উত্তাপ ছড়ায়। যদিও এবারের বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচটি হলো বড্ড একপেশে। যেখানে আর্জেন্টিনার দুর্দান্ত ফুটবলের সামনে আক্ষরিক অর্থেই উড়ে গেছে লা সেলেস্তেরা। লিওনেল মেসির আলোকিত পারফরম্যান্সে উরুগুয়েকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে আর্জেন্টিনা।

সোমবার (১১ অক্টোবর) রাজধানী বুয়েনেস আইয়ারসে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলে আর্জেন্টিনার হয়ে গোল করেন মেসি, রদ্রিগো দে পল ও লাউতারো মার্তিনেস। আর্জেন্টিনার ঐতিহাসিক মনুমেন্তাল স্টেডিয়ামে দর্শকদের স্বস্তি দিয়ে মাঠে নামেন লিওনেল মেসি। বল দখলের লড়াইয়ে ৬২ শতাংশ এগিয়ে থাকা আর্জেন্টিনার ২৩ শটের ১০টি ছিল গোলের লক্ষ্যে। গোল আসে তিনটি থেকে। বিপরীতে উরুগুয়ের ১০টি শটের ছয়টি ছিল লক্ষ্যে।

এদিন ম্যাচের ১০ মিনিটের মধ্যে দারুণ দুটি সেভে আর্জেন্টিনাকে শুরুতেই পিছিয়ে যেতে দেননি গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেস। পঞ্চম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত আর্জেন্টিনা। তবে মেসির ডি-বক্সের ভেতরের ক্রস খুঁজে পায়নি নিকোলাস ও লেয়ান্দোকে। খেলার ২১ মিনিটে দলকে আরেকবার দুর্দান্ত সেইভে রক্ষা করেন মার্তিনেস। অরক্ষিত সুয়ারেসের দারুণ হাফ ভলি ঠেকিয়ে দেন আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক। দুই মিনিট পর সুয়ারেসের শট পোস্টে লেগে ফিরে আসে।

ভাগ্য ভালো ছিল না সুয়ারেসের। বিশ্বের অন্যতম সেরা এই স্ট্রাইকার উরুগুয়েকে এগিয়ে নেয়ার মোক্ষম সুযোগ পান ২৮ মিনিটে। কিন্তু ক্রসবারে লাগে তার শট। ৩৮ মিনিটে অবিশ্বাস্য ভাবে এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা। পায়ের বাইরের অংশ দিয়ে মেসির উঁচু করে বাড়ানো বলে পা ছোঁয়াতে পারেননি নিকোলাস গনঞ্জালেস। এগিয়ে এসে বলের নাগাল পাননি উরুগুয়ে গোলরক্ষক ফার্নান্দো মুসলেরাও। উরুগুয়ের পেনাল্টি বক্সে বল ড্রপ করে বোকা বানিয়ে জালে জড়ায় মেসি। এটি প্রথম দক্ষিণ আমেরিকান খেলোয়াড় হিসেবে মেসির ৮০তম আন্তর্জাতিক গোল।

ম্যাচের বিরতির আগে ৪৪তম মিনিটে স্কোর লাইন ২-০ করে ফেলেন দে পল। মেসির বাড়ানো বল পেয়ে যান লাউতারো মার্তিনেস। পরে মার্তিনেস শট নিতে না পারলেও ছুটে গিয়ে বল জালে পাঠান দে পল।

দ্বিতীয়ার্ধেও চলতে থাকে আর্জেন্টিনার দাপট। তৃতীয় গোল পেতেও বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি স্বাগতিকদের। ৬২ মিনিটে স্কোরশিটে নাম তোলেন লাউতারো। এই গোলেও আছে মেসির ছোঁয়া। তার বাড়ানো বলে বাঁ প্রান্ত থেকে দে পলের চমৎকার ক্রস খুঁজে নেয় লাউতারোকে। ফাঁকায় থাকা ইন্টার মিলান স্ট্রাইকার লক্ষ্যভেদ করতে ভুল করেননি।

বড় জয়ে ১০ ম্যাচে ছয় জয় ও চার ড্রয়ে ২২ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে রয়েছে আর্জেন্টিনা। দিনের আরেক ম্যাচে কলম্বিয়ার বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করা ব্রাজিলের সঙ্গে কমিয়েছে ব্যবধান। কারণ ১০ ম্যাচে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ব্রাজিল। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে রয়েছে একুয়েডর। গোল ব্যবধানে পিছিয়ে চারে উরুগুয়ে

অর্থসূচক/এএইচআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •