সৌদিতে ড্রোন হামলায় বাংলাদেশিসহ আহত ১০

সৌদি আরবে ড্রোন হামলায় তিন বাংলাদেশিসহ অন্তত দশজন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে সৌদির ৬ নাগরিক এবং এক সুদানি রয়েছেন। শুক্রবার (৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় জাযান প্রদেশের কিং আবদুল্লাহ বিমানবন্দরে এই হামলা চালানো হয়।

শনিবার (৯ অক্টোবর) সৌদি প্রেস এজেন্সির (এসপিএ) বরাত দিয়ে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এ তথ্য জানিয়েছে।

সৌদি সেনাবাহিনীর এক কর্মকর্তা এসপিএকে জানিয়েছেন, হামলায় বিস্ফোরক পদার্থ পরিপূর্ণ ‘লাদেন ড্রোন’ ব্যবহার করেছে দুর্বৃত্তরা। আহতদের মধ্যে বাংলাদেশি নাগরিক ছাড়াও ৬ সৌদি ও এক সুদানি নাগরিক রয়েছেন।

বার্তা সংস্থা রয়র্টাসের খবরে বলা হয়েছে, হামলায় ৬ সৌদি, ৩ বাংলাদেশি ও এক সুদানের নাগরিক আহত হন। হামলার দায় এখনও কেউ স্বীকার করেনি, তবে ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীরা এ হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ সৌদি জোটের।

আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে প্রথমে সুরক্ষিত এলাকায় একটি ড্রোন থেকে গুলি ছোড়া হয়। পরে আরেকটি ড্রোন বিমানবন্দরের সামনের দিকের জানালায় হামলা চালায়। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে। এরপর শনিবার সকালে একই স্থানে হামলার চেষ্টাকালে বিস্ফোরকভর্তি একটি ড্রোন আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীরা সদস্যরা।

সৌদি জোট বাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল তুর্কি আল মালিকি বলেছেন, সৌদি বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনী ইয়েমেন থেকে জাজানের উদ্দেশ্যে হুতিদের ছোড়া দুটি সশস্ত্র ড্রোন প্রতিরোধ করে ধ্বংস করেছে। ড্রোনের কিছু ধ্বংসাবশেষ বিমানবন্দরের ভেতরে পড়ায় কয়েকজন যাত্রী ও কর্মী আহত হয়েছেন।

ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীদের হাতে ২০১৫ সালে ক্ষমতাচ্যুত হন ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট মনসুর হাদি। তাকে পুনরায় ক্ষমতায় বসাতে ওই বছরই দেশটিতে হুথিবিরোধী অভিযান শুরু করে সৌদি নেতৃত্বাধীন যৌথ সামরিক বাহিনী। সেই থেকে সৌদি আরবের বিভিন্ন শহরে নিয়মিত ড্রোন ও রকেট হামলা চালিয়ে যাচ্ছে ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহীরা। তারপর থেকে চলা যুদ্ধে প্রায় ১০ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। কয়েক লাখ মানুষ ঘরছাড়া হয়েছে। দুর্ভিক্ষের মুখে পুরো ইয়েমেন।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •