আগে মানুষের বিমানে ওঠার সামর্থ্য ছিল না: রেলমন্ত্রী

রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, একটি দেশের উন্নয়নের জন্য প্রয়োজন ভারসাম্যপূর্ণ যোগাযোগ ব্যবস্থা। যে দেশের যোগযোগ ব্যবস্থা যত উন্নত, সেই দেশও তত উন্নত। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে অনেক আগেই সৈয়দপুর বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিকমানের বিমানবন্দরে উন্নীত করার ঘোষণা দিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, এক সময় ঢাকা থেকে রাজশাহী ও সৈয়দপুর হয়ে বিমানের ফ্লাইট চলাচল করতো। বিমানের যাত্রী সংখ্যা ছিল হাতেগোনা। তখন দেশের মানুষের বিমানে ওঠার সামর্থ্য ছিল না। মানুষের অর্থনৈতিক অবস্থা একেবারে খারাপ ছিল। কিন্তু বর্তমানে মানুষের আর্থিক সক্ষমতা বেড়েছে। এখন প্রতিদিন সৈয়দপুর-ঢাকা রুটে ১৬টি ফ্লাইট উঠানামা করছে।

আজ বৃহস্পতিবার (০৭ অক্টোবর) সৈয়দপুর-কক্সবাজার রুটে সরাসরি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট চলাচলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

সৈয়দপুর বিমানবন্দরের টার্মিনালের বহির্গমন লাউঞ্জের সামনে সৈয়দপুর-কক্সবাজার রুটে ফ্লাইট চলাচলের বর্ণাঢ্য উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, সৈয়দপুর বিমানবন্দর থেকে শুধু বিমানে যাত্রী পরিবহন নয়, বিমানের কার্গো ফ্লাইট চলাচলের সম্ভাবনা রয়েছে। এতে আমাদের পর্যটন শিল্পের সম্ভাবনা আরো উজ্জ্বল ও লাভবান হবে।

রেলমন্ত্রী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে দেশ ব্যাপক উন্নয়নের পথে চলেছে। বিএনপি ও জামায়াত সরকারের বিরুদ্ধে নানারকম যড়যন্ত্রে লিপ্ত। তিনি সরকার বিরোধী শক্তিকে প্রতিহত করতে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট অভিনেতা ও নাট্যব্যক্তিত্ব সাবেক সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি। এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সিনিয়র সচিব সাজ্জাদুল হাসান, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোকাম্মেল হোসেন ও রংপুর বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল ওয়াহাব মিঞা।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী এমপির সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও ড. আবু সালেহ মো. মোস্তফা কামাল।

উল্লেখ্য, প্রতি বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা ২০ মিনিটে সৈয়দপুর থেকে কক্সবাজারের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে বিমান। আর প্রতি শনিবার দুপুর ১টা ২৫ মিনিটে কক্সবাজার থেকে সৈয়দপুরের পথে রওনা দেবে একটি ফ্লাইট।

অর্থসূচক/কেএসআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •