বাঁচার চেষ্টায় ওষুধের দোকানে যুবক, পিছু নিয়ে ছুরিকাঘাতে হত্যা

বগুড়ায় খায়রুল ইসলাম সুমন (২৮) নামের এক যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শহরের শেরপুর রোডের কানছগাড়ি এলাকায় বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সুমন রংপুর শহরের সাতগাড়া মিস্ত্রী পাড়ার আব্দুল খালেকের ছেলে। তিনি বগুড়া শহরতলীর সাবগ্রাম এলাকায় থাকতেন এবং নিজস্ব প্রাইভেটকার ভাড়ায় চালাতেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে পুলিশ জানায়, বুধবার রাত সাড়ে ১০টার পর থেকেই প্রাইভেটকার নিয়ে শেরপুর রোডের কানছগাড়ি এলাকায় উপশম ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সামনে অপেক্ষা করছিলেন সুমন। এর মধ্যে রাত সাড়ে ১১টার দিকে দুই যুবক গাড়ির সামনে গেলে সুমন গাড়ি থেকে নামে যান। ওই দুই যুবকের সঙ্গে কথা বলার একপর্যায়ে তাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে দুই যুবক সুমনকে ছুরিকাঘাত করলে তিনি দৌড়ে একটি ওষুধের দোকানে ঢুকে আত্মরক্ষার চেষ্টা করেন। এরপর ওই দুই যুবকও তার পেছনে সেই দোকানের ভেতরে ঢুকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান।

পরে স্থানীয় লোকজন সুমনকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনার পরই পুলিশ প্রাইভেটকারটি থানা হেফাজতে নেয়।

বগুড়া সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ জানান, স্থানীয় নৈশপ্রহরী ও নিহত সুমনের সঙ্গে থাকা এক যুবকের কাছ থেকে হত্যাকাণ্ডের কারণ সম্পর্কে জানার এবং জড়িতদের শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

অর্থসূচক/কেএসআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •