করোনা ও উপসর্গে রামেকে আরও ৩ জনের মৃত্যু

করোনা সংক্রমণ ও উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে আরও ৩ জন মারা গেছেন। এদের মধ্যে করোনায় দুইজন এবং উপসর্গ নিয়ে একজন মারা গেছেন।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টা থেকে বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টার মধ্যে হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে তারা মারা যান।

আজ বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকালে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে করোনায় নওগাঁর একজন, করোনা উপসর্গ নিয়ে রাজশাহীর একজন এবং করোনা নেগেটিভ হয়ে নাটোরের একজন মারা গেছেন।

হাসপাতালের ২৪০ শয্যার করোনা ইউনিটে রোগী ভর্তি নেমেছে শতকের নিচে। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত রোগী ভর্তি ছিলেন এই ৯৩ জন। এক দিন আগেও এই সংখ্যা ছিল ১০০।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে করোনা সংক্রমণে একজন মারা গেছেন। করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে একজন এবং করোনা নেগেটিভ হয়েও অন্যান্য শারীরিক জটিলতায় একজন করে মোট ৩ জন মারা গেছেন।

তাদের মধ্যে দুজন পুরুষ এবং একজন নারী রয়েছেন। তিনজনেরই বয়স ৬১ বছরের ওপরে। করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) একজন এবং ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে ২ জন মারা গেছেন।

এদিকে বর্তমানে রাজশাহীর ৪৮ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ১৪ জন, নাটোরের ৩ জন, নওগাঁর ১৫ জন, পাবনার ১০ জন, কুষ্টিয়ার একজন, সিরাজগঞ্জের একজন এবং ঝিনাইদহের একজন রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

হাসপাতালে করোনা নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১৯ জন। করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ৪৭ জন। করোনা ধরা পড়েনি ভর্তি ২৭ জনের। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৮ জন। এই এক দিনে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১৩ জন।

এর আগে বুধবার রামেক হাসপাতাল ল্যাবে ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে করোনা ধরা পড়েছে ১১ জনের নমুনায়। একই দিনে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে আরও ২৬৪ জনের। এর মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১০ জনের। পরীক্ষার অনুপাতে রাজশাহীর ৬ দশমিক ৪৫ শতাংশ এবং জয়পুরহাটের ৪ দশমিক ৮১ শতাংশ নমুনায় করোনা ধরা পড়েছে।

অর্থসূচক/কেএসআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •