বঙ্গবন্ধুর দেশে সব ধর্মের মানুষের সমান অধিকার: মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাংলাদেশে সব ধর্মের মানুষের অধিকার সমান বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর নিউ ইস্কাটন রোডে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ‘জাতীয় চার্চ পরিষদ বাংলাদেশ’ আয়োজিত আলোচনা সভা ও বিশেষ প্রকাশনার মোড়ক উম্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে সব ধর্মের মানুষের অধিকার সমান। তার নেতৃত্বে সব ধর্মের মানুষ ঐক্যবদ্ধভাবে বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছে। বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালের সংবিধানেই সব ধর্মের মানুষের সমান অধিকার নিশ্চিত করে গেছেন।’

মন্ত্রী বলেন, ‘১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পর সাম্প্রদায়িক শক্তি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখল করে সংখ্যালঘু ধর্মীয় সম্প্রদায়কে অধিকারবঞ্চিত করেছে। তাদের সম্পদ দখলসহ বিভিন্নভাবে অত্যাচার করেছে। বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে সব ধর্মের মানুষ সমান অধিকার ভোগ করছে।’

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে সব ধর্মের মানুষকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান মন্ত্রী।

জাতীয় চার্চ পরিষদ বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক ডেভিড অনিরুদ্ধ রায়ের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন ইতিহাসবিদ অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন। এছাড়া বাংলাদেশে রোমান ক্যাথলিক চার্চের সাবেক আর্চবিশপ কার্ডিনাল প্যাট্রিক ডি রোজারিও, বাংলাদেশ খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট নির্মল রোজারিওসহ জাতীয় চার্চ পরিষদের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে মন্ত্রী জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে জাতীয় চার্চ পরিষদের উদ্যোগে প্রকাশিত বিশেষ প্রকাশনার মোড়ক উন্মোচন করেন।

অর্থসূচক/এমএস