বিড়ালের শোক ছুঁয়ে গেল সবাইকে

ভারতের গুজরাটে বসবাস করেন রেলওয়ে কর্মচারী মুন্নাভার শেখ। তিনিও তার জীবনে প্রিয়জনের কবরে অনেককে শোক করতে দেখেছেন। কিন্তু শেখ এবং তার পরিবার তাদের পোষা প্রাণীর আচরণে বিস্মিত।

তাদের পোষা প্রাণী লিও, একটি ফার্সি বিড়াল। গত ২৩ সেপ্টেম্বর লিওর সঙ্গে বেড়ে ওঠা কোকো মারা যায়। সে শোক সহ্য না করতে পেরে লিও কোকোর মাটি দেওয়ার স্থানে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকে।

সম্প্রতি মাটি দেওয়ার স্থানের লিওর বসে থাকার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। আর এ বিষয়টি নেটিজেনদের মনে দাগ কেটেছে। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের গুজরাটে। সেখানের মুন্নাভার শেখ পরিবারের সদস্য ছিল দুটি বিড়াল, যার একটি লিও ও একটি কোকো। ২৩ সেপ্টেম্বর কোকো মারা যায়। কোকো মারা যাওয়ার পর থেকে কবরের কাছে চুপচাপ বসে থাকে লিও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ দৃশ্য দেখে কয়েকজন ব্যক্তি কৌতূহলবশত শেখের বাসায় গিয়েছিলেন। তারা দেখেন শেখের পরিবার লিওর অতিরিক্ত যত্ন নিচ্ছিল যাতে এটি শোক কাটিয়ে উঠতে পারে।

মুন্নাভারের ছেলে ফয়সাল বলেন, আমরা আমাদের কম্পাউন্ডে কোকোকে মাটি চাপা দিয়েছি। আমরা দেখে অবাক হয়েছি যে লিও সেখানে গিয়ে দীর্ঘ সময় বসে থাকে।

অর্থসূচক/কেএসআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •