ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে আফগানিস্তানের ব্যাংকিং খাত

আফগানিস্তানের ব্যাংকিং খাত ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছে বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির একজন শীর্ষ ব্যাংক কর্মকর্তা। ইসলামিক ব্যাংক অব আফগানিস্তানের প্রধান নির্বাহী সৈয়দ মুসা কলিম আল-ফালাহি বিবিসিকে বলেন, গ্রাহকদের ভীতির কারণে দেশের অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানগুলো ‘অস্তিত্ব সংকটে’ রয়েছে।

কাবুলের নিয়ন্ত্রণ তালেবানের দখলে যাওয়ার পর তিনি মধ্যপ্রাচ্যের দুবাইয়ে সাময়িক আশ্রয় নেন। সেখান থেকে তিনি বলেন, এ মুহূর্তে ব্যাপকভাবে (ব্যাংক থেকে) অর্থ তুলে নেয়া হচ্ছে।

মুসা কালিম আল-ফালাহি বলেন, মানুষ ব্যাপক পরিমাণে অর্থ উত্তোলন করছে। শুধুই উত্তোলন হচ্ছে। বেশিরভাগ ব্যাংক কার্যক্রম চালাতে পারছে না। পুরোদমে সেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না তাদের পক্ষে।

অর্থনৈতিক সহযোগিতার জন্য তালেবানের ভিন্ন উৎসের সন্ধানের বিষয়টিকে আশাব্যাঞ্জক বলে উল্লেখ করেন আল-ফালাহি। তিনি বলেন, তালেবান চীন এবং রাশিয়াসহ বেশ কয়েকটি দেশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। মনে হচ্ছে, আজ হোক কাল হোক তালেবান এই প্রচেষ্টায় সফল হবে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে অবস্থান করছেন মুসা কালিম। আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি হলে তিনি দুবাই চলে যান।

কর্মক্ষেত্রে নারীদের অবস্থা নিয়ে জানতে চাওয়া হলে মুসা কালিম বলেন, আমাদের ব্যাংকে নারীরা কাজে ফিরছে।

১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ তালেবানের হাতে যাওয়ার পর দেশটির অর্থনীতি টালমাটাল অবস্থায় পড়েছে। এমনিতেই যুদ্ধবিধস্ত দেশটির অর্থনৈতিক অবস্থা ভাল ছিল না। রাজনৈতিক পটপরিবর্তনের ফলে জিডিপির ৪০ শতাংশ বিদেশি সহায়তার ওপর নির্ভরশীল অর্থনীতিতে দুর্দশা নেমে এসেছে।

তালেবানের ক্ষমতা দখলের পর থেকে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) এবং বিশ্ব ব্যাংক সব ধরনের বরাদ্দ ছাড় করা বাতিল ও সম্পদ জব্দ করেছে।

এই মুহূর্তে অর্থ ছাড় দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনার আহ্বান জানান মুসা কালিম আল-ফালাহি।

সূত্র: বিবিসি।

অর্থসূচক/কেএসআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •