সিনহা হত্যা মামলার চতুর্থ দফা সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার তৃতীয় দফা শেষে চতুর্থ দফা সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকালে ওসি প্রদীপদের কাছে হয়রানি হওয়া ভুক্তভোগীদের জবানবন্দির মধ্য দিয়ে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। এ সাক্ষ্যগ্রহণ চলবে বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত। তৃতীয় ধাপে সাক্ষ্যগ্রহণের শেষ দিনে সাক্ষ্য দিয়েছেন সার্জেন্ট আয়ুব আলী, ডা. শাহীন আব্দুর রহমান ও হাফেজ সালেহ আহমেদ।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলাটির রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ফরিদুল আলম। ওই মামলার ১৫ আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়েছে।

গত ২০ সেপ্টেম্বর থেকে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত টানা তিনদিন এ মামলার তৃতীয় দফা এবং ৫ সেপ্টেম্বর থেকে ৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত টানা চারদিন মামলার দ্বিতীয় ধাপের সাক্ষ্যগ্রহণ ছিল। এর আগে প্রথম দফায় ২৩ থেকে ২৫ আগস্ট মামলার ১নং সাক্ষী ও বাদি শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস এবং ২নং সাক্ষী ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সাহেদুল ইসলাম সিফাতের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ করেন কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ ইসমাঈলের আদালত।

এনিয়ে তিন ধাপে মামলার বাদী ও সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌসহ এ মামলায় ৮৩ সাক্ষীর মধ্যে তিন দফায় আদালতে মোট ১৪ জন সাক্ষ্য দিলেন। তাদের জেরাও শেষ করেছে আসামি পক্ষের আইনজীবীরা।

পিপি ফরিদুল আলম বলেন, আজ ভিকটিম সাক্ষী তথা ওসি প্রদীপ গংয়ের অত্যাচার-নির্যাতনে যারা ভুক্তভোগী ছিলেন তাদের জবানবন্দির মাধ্যমে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাঈলের আদালতে চতুর্থ দফা সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে। তৃতীয় দফা সাক্ষগ্রহণ শেষে বিচারক মোহাম্মদ ইসমাঈল চলতি মাসের ২৮ এবং ২৯ তারিখ মামলার পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য করেছিলেন।

উল্লেখ্য, গতবছর ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর মেরিনড্রাইভ চেক পোস্টে গুলি করে হত্যা করা হয় সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানকে।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •