এ সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন নয়: আব্বাস

জাতীয় নির্বাচনের প্রতি ইঙ্গিত করে, সেই নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে বিএনপির অবস্থান স্পষ্ট করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস।

তিনি বলেছেন, আমরা এ সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনে যাবো না। কথা পরিষ্কার, এ সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনে বিএনপি ও দেশের জনগণ যাবে না। এ সরকারের পতন ঘটিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে যে নির্বাচন হবে, ইনশাল্লাহ আমরা সে নির্বাচনে অংশ নেবো।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির প্রয়াত সদস্য বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব.) আসম হান্নান শাহের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকীর আলোচনা সভার আয়োজন করে হান্নান শাহ স্মৃতি পরিষদ।

মির্জা আব্বাস বলেন, আমরা বলতে চাই, এ সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন হবে না, কোনো নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না। নির্বাচন করার চেষ্টা করলে প্রতিরোধ করা হবে, বাধা দেওয়া হবে। সে বাধার মুখে আপনারা (সরকারের প্রতি ইঙ্গিত করে) টিকতে পারবেন না।

আগামী দিনের জন্য নেতাকর্মীদের সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন সম্পর্কে মির্জা আব্বাস বলেন, ইদানীং রব উঠেছে, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করা হবে সার্চ কমিটি দিয়ে। ভাই, সার্চ কমিটির নাম কোনো দিন শুনিনি। আওয়ামী লীগের সময় শুননাল- খালি কয় ‘সার্চ কমিটি সার্চ কমিটি’।

সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন, এ সার্চ কমিটির কোনো সাংবিধানিক ভিত্তি নেই। আপনারা সার্চ কমিটির মাধ্যমেই করেন আর যেভাবেই করেন- আমরা ওই জায়গায় নেই।

সংগঠনের আহ্বায়ক ও বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলনের সভাপতিত্বে এবং জেলা নেতা মজিবুর রহমান ও সাখাওয়াত হোসেন সবুজের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমানউল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভুঁইয়া, কৃষক দলের সদস্য সচিব শহিদুল ইসলাম বাবুল, গাজীপুর বিএনপির ডা. রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, খন্দকার আজিজুল রহমান পেয়ারা, হেলাল উদ্দিন, ভিপি ইব্রাহিম, আবু তাহের মসুল্লী, রাশেদুল হক এবং প্রয়াত হান্নান শাহর ছেলে শাহ রিয়াজুল হান্নান প্রমুখ বক্তব্য দেন।

অর্থসূচক/এমএস

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •