তালেবানদের পতাকা ব্যবহার: বিশ্বকাপে নিষিদ্ধ হতে পারে আফগানিস্তান

তালেবানরা আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পরই পাল্টে গেছে দেশটির নাগরিকদের জনজীবন। এর প্রভাব পড়েছে ক্রিকেটেও। এরই মধ্যে নারীদের ক্রিকেট নিষিদ্ধ করেছে দেশটির ক্ষমতাসীনরা। কদিন পরেই শুরু হচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। র‍্যাঙ্কিংয়ে সেরা ৮ দলের মধ্যে থেকে এই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সরাসরি খেলার টিকিট পেয়েছে আফগানরা। যদিও আফগানিস্তানের বিশ্বকাপে খেলা নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, বিশ্বকাপে অংশ নেয়া ১৬ দল কোন পতাকার অধীনে খেলবে তা আইসিসিকে জানাতে হবে।

বিপত্তি বেধেছে এখানেই। আফগানরা তালেবানদের পতাকার অধীনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে পারবে কিনা। আফগানিস্তান তালিবানদের পতাকা জমা দিলে দেশটিকে বিশ্বকাপে নিষিদ্ধ করতে পারে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

যদিও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে শিগগিরই বিশ্ব ক্রিকেট সংস্থা একটি জরুরি বৈঠকে বসবে। আফগানিস্তান কোনো কারণে নিষিদ্ধ হলে কারা তাদের স্থলাভিষিক্ত হবে সেটাও এখনও নিশ্চিত হয়নি। আফগানিস্তানের আইসিসির সদস্য হিসেবে থাকার বৈধতা যাচাইয়ের জন্য নভেম্বরেই আলোচনায় বসার কথা রয়েছে তাদের।

আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, তাদের পূর্ণ সদস্যভুক্ত প্রত্যেক দেশে একটি নারী জাতীয় দল থাকতে হবে। যদিও তালেবানরা নারীদের ক্রিকেট নিষিদ্ধ করেছে। আফগানিস্তানকে আইসিসির পূর্ণ সদস্য পদ থেকে নিষিদ্ধ করতে হলে বোর্ডের ১৭ সদস্যের মধ্যে ১২ জনের ভোট বিরুদ্ধে যেতে হবে তাদের।

অর্থসূচক/এএইচআর

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •