শেষের জন্য মুস্তাফিজকে রেখে দিয়েছিলেন স্যামসন

১৮৫ রানের বড় পুঁজি গড়েও ক্রিস মরিস-চেতন সাকারিয়ার খরুচে বোলিংয়ে হারের শঙ্কা তৈরি হয়েছিল রাজস্থান রয়্যালসের। তবে শেষ দুই ওভারে পাঞ্জাব কিংসের মাত্র ৮ রান প্রয়োজন হলেও সেটা নিতে দেননি মুস্তাফিজুর রহমান ও কার্তিক তিয়াগী। মাঝের দিকে মরিস প্রচুর রান দিলেও শুরুতে ভালো বল করা মুস্তাফিজকে বোলিংয়ে আনেননি অধিনায়ক সাঞ্জু স্যামসন। যে কারণে সমর্থকদের মাঝে প্রশ্ন উঁকি দিচ্ছিলো যে কেন বাংলাদেশের বাঁহাতি এই পেসারকে বোলিংয়ে আনা হচ্ছে না। ম্যাচ শেষে অবশ্য সেটার কারণ জানিয়েছেন স্যামসন।

৪ রান দিয়ে রাজস্থানের বোলিং ইনিংস শুরু করেন মুস্তাফিজ। এরপর ৮ রান দেন নিজের করা দ্বিতীয় ওভারে। নিজের তৃতীয় ওভারে অবশ্য খানিকটা খরুচে ছিলেন বাঁহাতি এই পেসার। তবে ইনিংসের ১৯তম আর নিজের চতুর্থ ওভারে মাত্র ৪ রান দেন। অ্যাইডেন মার্করামের উইকেট পেতে পারতেন। যদি না উইকেটের পেছনে দাঁড়িয়ে থাকা স্যামসন বলটাকে তালুবন্দী করতে পারতেন। উইকেট পাওয়ার সম্ভাবনা ছিল আরো একটি, তার বলে লোকেশ রাহুলের ক্যাচ ছেড়েছেন সাকারিয়া।

তবে দল জয় পাওয়ার পর মুস্তাফিজ ও তিয়াগীকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন রাজস্থানের অধিনায়ক স্যামসন বলেন, ‘আমাদের লড়াইটা বাকি ছিল। আমরা জানি যে, আমাদের স্পেশাল কিছু বোলার আছে। মুস্তাফিজের ওভারগুলো আমরা শেষের জন্য রেখেছিলাম। তিয়াগী তার ইয়র্কার নিয়ে বেশ আত্মবিশ্বাসী। বিশেষ করে ওয়াইড লাইনের ইয়র্কার নিয়ে।’

তিনি আরও বলেন, ‘নতুন ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে তারা দারুণভাবে কার্যকর করতে পেরেছে। আমরা লড়ে যাবো এবং বিশ্বাস রেখে যাবো। আমার বোলারদের প্রতি সবসময়ই আমার বিশ্বাস ছিল। আমরা লড়ে যাচ্ছিলাম এবং এ কারণেই তাদের দুজনের জন্য শেষের দিকে ওভার রেখে দিয়েছিলাম। ‘

অর্থসূচক/এএইচআর

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •