যে ইউনিয়নের সব প্রার্থীই বিনাভোটে নির্বাচিত

করোনার কারণে দুই দফা পিছিয়ে ২০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উপকূলীয় জেলা বাগেরহাটের ৬৫টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। তবে নির্বাচন হওয়া ইউনিয়নগুলোর তালিকায় নাম থাকলেও এদিন ভোটগ্রহণ হচ্ছে না বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলার একটি ইউনিয়নে।

উপজেলার রাঢ়ীপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, ওয়ার্ড সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্য পদের সব কটিতেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছেন। নির্বাচিত সবাই আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফরাজী বেনজীর আহমেদ জানান, বাগেরহাট জেলার ৯ উপজেলার মোট ৬৬টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হচ্ছে। তবে ভোট হচ্ছে ৬৫টিতে। কারণ কচুয়া উপজেলার রাঢ়ীপাড়া ইউপিতে চেয়ারম্যান, সদস্য ও সংরক্ষিত নারী সদস্যের ১৩টি পদের সবটিতেই প্রার্থীরা বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

ফরাজী বেনজীর আহমেদ আরও জানান, নিয়ম অনুযায়ী যাচাই-বাছাই ও প্রত্যাহারের পর কোনো পদে একক প্রার্থী থাকলে তাকে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করতে হয়। সেই অনুযায়ী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের পর ৩৮টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদের একক প্রার্থীদের বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ভূঁইয়া হেমায়েত উদ্দীন বলেন, ২০ সেপ্টেম্বরের নির্বাচনে কচুয়া উপজেলার রাঢ়ীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়লাভ করেছেন। এছাড়া সদস্য পদগুলোতে দল সমর্থিত সদস্য ছাড়া অন্য কোনো প্রার্থী অংশগ্রহণ করেনি। সেই হিসেবে ১৩ জনই বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

এছাড়া চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে ৬৫ ইউনিয়নের মধ্যে ৩৮টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা ভোটের আগেই বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হয়েছেন।

অর্থসূচক/কেএসআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •