বিতর্কিত মানকাডে হারল বাংলাদেশ যুবারা

১৬৫ রানে ৯ উইকেট হারানোর পরও বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখাচ্ছিলেন তাহজিবুল ইসলাম। তবে বাংলাদেশের সেই স্বপ্ন ভঙ হয় আফগানিস্তান যুব দলের অধিনায়ক নাঙ্গোলিয়া খারোটের বিতর্কিত এক মানকাড আউটে। ইনিংসের ৪৪তম ওভারে দ্বিতীয় বল, তখন জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ২০ রান।

এমন সময় নন স্ট্রাইক প্রান্তে থাকা মুশফিক হাসানকে মানকাড আউট করে আফগানদের আরাধ্য জয় এনে দেন খারোট। তাতে তাহজিবুল ৫০ রানে অপরাজিত থাকলেও ১৯ রানে হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় টাইগার যুবাদের। ফলে শেষ ম্যাচে আফগানরা জয় পেলেও ৩-১ ব্যবধানে সিরিজে এগিয়ে বাংলাদেশের যুবারা।

জয়ের জন্য ২১১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দারুণ শুরু করেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার মফিজুল ইসলাম ও ইফতিখার হোসেন। উদ্বোধনী জুটিতে তাঁরা দুজনে মিলে যোগ করেন ৫২ রান। পাওয়ার প্লের শেষ ওভারে ব্যক্তিগত ১৮ রানে ইফতিখার ফিরলে ভাঙে তাঁদের এই জুটি।

আরেক ওপেনার মফিজুলও ফেরেন পরের ওভারে। ডানহাতি এই ওপেনার করেছেন ৩০ বলে ২৬ রান। তিনে নামা খালিদ হাসান খেলেছেন ৩৫ বলে ২৩ রানের ইনিংস। এরপরই ধস নামে বাংলাদেশ শিবিরে। ১০৭ রানে ৬ উইকেট হারানোর পর জুটি গড়ার চেষ্টা করেন তাহজিবুল ও আবদুল্লাহ আল মামুন।

যদিও তাঁদের দুজনের জুটি খুব বেশি বড় হয়নি। ২৫ বলে ২১ রান করে মামুন সাজঘরে ফিরলে ভাঙে তাঁদের এই জুটি। এরপর তাহজিবুল হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিলেও খারোটের বিতর্কিত আউটে বাংলাদেশকে জেতাতে পারেননি তিনি। আফগানদের হয়ে খারোট, শহিদুল্লাহ ও নাভিদ দুটি করে উইকেট নিয়েছেন।

এর আগে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেটে ২১০ রান সংগ্রহ করে আফগানিস্তানের যুবারা। দলটির হয়ে সর্বোচ্চ ৬০ রান করেছেন বিলাল আহমেদ। এ ছাড়া সুলিমান আরবজাই ৪৩ ও খারোট করেছেন ২৭ রান। বাংলাদেশের হয়ে মহিউদ্দিন তারেক নিয়েছেন দুটি উইকেট।

অর্থসূচক/এএইচআর