সিরিয়ায় ২ তুর্কি সেনা নিহত, আহত ৩

উত্তর-পশ্চিম সিরিয়ায় বোমা বিস্ফোরনে দুই তুর্কি সেনা নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও ৩ সেনা। তুর্কি সেনারা ওই অঞ্চলে ইদলিব সড়ক ধরে কাফারিয়া অঞ্চলের দিকে এগুতে থাকলে ওই পথে এই বিস্ফোরণ ঘটে।

আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এ ছাড়া তুর্কি সরকারও তাদের দুই সেনা নিহতের তথ্য নিশ্চিত করেছে।

ব্রিটেনভিত্তিক যুদ্ধ পর্যবেক্ষণ সংস্থা ‘সিরিয়ান অবসারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস’ জানিয়েছে, ইদলিব শহর ও বিন্নিস শহরের মাঝামাঝি রাস্তায় তুরস্কের সেনাদের ওপর বোমা হামলা হয়। আহত সেনাদের হেলিকপ্টারে করে তুরস্কে নেওয়া হয়।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, তুরস্ক এ ঘটনার জন্য কুর্দি বিদ্রোহীদের সন্দেহ করছে। সিরিয়ার অভ্যন্তরে এমন ঘটনায় আসাদ সরকারের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। হামলার কোনও গোষ্ঠী দায় স্বীকার করেনি।

আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, ২০২০ সালে উত্তরপশ্চিম সিরিয়ায় থেমে থেমে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। ২০২০ সালে এই এলাকায় সংঘর্ষ বন্ধে তুরস্ক ও রাশিয়ার মধ্যস্থতায় এক যুদ্ধবিরতি চুক্তি হয়। এই এলাকায় রাশিয়া ও তুরস্ক পরস্পরের বিপরীত গোষ্ঠীকে সমর্থন করে। সিরিয়ার বাশার আল আসাদ সরকার এই যুদ্ধবিরতি মেনে নেন। কিন্তু রাশিয়া সমর্থিত আসাদ সরকার এই এলাকায় হামলা চালালে যুদ্ধবিরতি ভেঙে যায়।

সিরিয়ার উত্তরাংশ, ইরাকের উত্তরাংশ ও ইরানের উত্তরাংশ এই তিন রাষ্ট্রের উত্তরাংশ সংলগ্ন তুরস্কের বিস্তীর্ণ এলাকায় কুর্দিদের আবাসস্থল। কুর্দিরা পৃথক একটি জাতি। তবে চার রাষ্ট্রের ভেতরেই তাদের আবাসভূমির অবস্থান। যে কারণে ৭৫ বছর ধরে সংগ্রাম করার পরও তারা পৃথক জাতিসত্তা নিয়ে একটা রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি। কারণ তুরস্ক, ইরান, ইরাক ও সিরিয়া তাদের চেয়ে শক্তিশালী রাষ্ট্র।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •