আবারও শঙ্কায় আফগানিস্তানের অস্ট্রেলিয়া সফর

চলতি বছরের নভেম্বরে এক টেস্টের সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া সফরে যাওয়ার কথা রয়েছে আফগানিস্তানের। সেই সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া সফরে যাওয়ার জন্য অনুমতিও দিয়েছে সম্প্রতি আফগানিস্তান দখলে নেয়া তালেবানরা। অনুমতি পেলেও সফর নিয়ে শঙ্কা কাটছে না।

তালেবানরা ক্ষমতায় আসায় হোবার্টে অনুষ্ঠেয় টেস্টের ভাগ্য নির্ভর করছে অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল সরকারের সিদ্ধান্তের উপর। আলোচনা চললেও এখন পর্যন্ত কোন সবুজ সংকেত আসেনি। তাতে আরও একবার শঙ্কায় পড়েছে আফগানিস্তানের অস্ট্রেলিয়া সফর।

আফগানিস্তান সিরিজ নিয়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) প্রধান নির্বাহী নিক হকলি বলেন, ‘এটা খুবই জটিল এবং চ্যালেঞ্জিং সময়। এখানে অনেকগুলো স্তর পড়েছে যা ক্রিকেটকে ছাপিয়ে যায়। এখন যে পরিস্থিতি এসে দাঁড়িয়েছে সেটা হলো আফগানিস্তান আইসিসি পূর্ণ সদস্য এবং তারা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা আইসিসির সঙ্গে এটি নিয়ে নিবিড়ভাবে কাজ করছি। অস্ট্রেলিয়া সরকার যেভাবে বলবে আমরা সেভাবেই নেতৃত্ব দেবো। আমরা এখন পর্যন্ত কোন উত্তর পাইনি। তবে আমরা আলোচনা করছি এবং সকল প্রাসঙ্গিক সংস্থার পরামর্শ নিচ্ছি।’

২৭ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও করোনাভাইরাসের কারণে প্রাথমিকভাবে সফরটি স্থগিত করা হয়েছিল। এদিকে তালেবানরা আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করলেও রশিদ খান-মোহাম্মদ নবিদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে শঙ্কা নেই। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরুর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও অস্ট্রেলিয়াকে নিয়ে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ আয়োজনের পরিকল্পনাও করছে তাঁরা। যদিও সেটির সূচি বা ভেন্যু এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে কাতার বা সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত হতে পারে সিরিজটি।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •