মেক্সিকোতে বন্যায় ১৭ রোগীর মৃত্যু

মেক্সিকোতে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে আকস্মিক বন্যায় হিদালগো রাজ্যের এক হাসপাতালে কমপক্ষে ১৭ রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা। খবর- বিবিসির

কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নদীর দু-কূল উপচে যাওয়ায় তুলা শহরের হাসপাতালটি পানিতে প্লাবিত হয়। এতে হাসপাতালের বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া মৃতদের কয়েকজন করোনা রোগী, যাদের অক্সিজেন সাপোর্টে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল, জানায় স্থানীয় সংবাদমাধ্যম।

উদ্ধারকারীরা হাসপাতালটি থেকে ৪০ জনের মতো রোগীকে অন্যত্র সরিয়ে নিয়েছেন। এদিকে, রাজ্যের গভর্নর ওমর ফায়াদকে বহনকারী একটি নৌকা নদীতে ডুবে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

পরে গভর্নর এক টুইটবার্তায় জানান, তিনি ‘নিরাপদ ও সুস্থ’ আছেন এবং বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় জরুরি সহায়তা কার্যক্রম চলমান থাকবে।

দেশজুড়ে ৩০ হাজারের বেশি মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে জানিয়ে মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাদর এ বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি নিচু এলাকার বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে থাকার আহ্বান জানান।

এদিকে মেক্সিকোতে মঙ্গলবার একটি শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। প্রশান্ত মহাসাগরের উপকূলের কাছে আঘাত হানা এ ভূমিকম্পের রিখটার স্কেলে মাত্রা ছিল ৭.১। এতে কয়েকশ’ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত রাজধানীতে ভবনগুলো কেঁপে উঠে। জাতীয় ভূকম্পন সার্ভিস একথা জানায়।

তারা জানায়, ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ছিল গুয়েরারো রাজ্যের আকাপুলকো সমুদ্র অবকাশ কেন্দ্রের ১১ কিলোমিটার দক্ষিণপূর্বে।

মেক্সিকো সিটি মেয়র ক্লাউদিয়া শিনবাউম টুইটার বার্তায় বলেন, এতে রাজধানীতে তাৎক্ষণিকভাবে বড় ধরনের ক্ষতির কোন খবর পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, ১৯৮৫ সালের সেপ্টেম্বরে মেক্সিকো সিটিতে রিখটার স্কেলে ৮.১ মাত্রার একটি শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাতে ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ প্রাণ হারান এবং কয়েকশ’ ভবন ধসে পড়ে।

অর্থসূচক/এএইচআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •