বিরোধ মীমাংসার কথা বলে ডেকে ধর্ষণ, এসআই গ্রেফতার

অভিযোগের মীমাংসা করার কথা বলে ডেকে ২০ বছর বয়সী এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে শেরেবাংলা নগর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) খায়রুল আলমের (৩২) বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় তাকে গ্রেফতার করেছে গুলশান থানা পুলিশ।

আজ মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) ওই ঘটনায় গুলশান থানায় মামলা দায়েরের পর এসআই খায়রুল আলমকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গুলশান থানা পুলিশ জানায়, রাজধানীর নিকেতন এলাকায় ধর্ষণের অভিযোগে এসআই খায়রুল আলমের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়, গত মাসে ভুক্তভোগী ওই তরুণী এক বন্ধুর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ নিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন। সেই ঘটনার তদন্তের দায়িত্ব পান শেরে বাংলা নগর থানার এসআই খায়রুল। তদন্তের সূত্রে ওই তরুণীর সঙ্গে খায়রুলের পরিচয় হয়। তদন্তের কথা বলে খায়রুল তরুণীর সঙ্গে বিভিন্ন সময় ফোনে অপ্রাসঙ্গিক কথা বলতেন, দেখা করতে বলতেন। সোমবার (৩০ আগস্ট) সকালে অফিসে যাওয়ার সময় স্কয়ার হাসপাতালের কাছে পান্থপথে খায়রুল ওই তরুণীকে দেখতে পান। তদন্ত ও তরুণীর সমস্যা মীমাংসা করে দেওয়ার কথা বলে এসআই খায়রুল তাকে মোটরসাইকেলে করে গুলশানের নিকেতনে একটি বাসায় নিয়ে যান। সেখানে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন। এরপর তাকে মোটরসাইকেলে করে পান্থপথে স্কয়ার হাসপাতালের সামনে নামিয়ে দেন।

ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (মিডিয়া) ফারুক হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, ওই তরুণী মঙ্গলবার সকালে গুলশান থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন। এরপরই অভিযুক্ত খায়রুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার বিষয়ে জানতে তাকে পাঁচদিনের রিমান্ড আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

অর্থসূচক/কেএসআর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •   
  •